ব্রেকিং নিউজ

মেজর জেনারেল (অব:) এ টি এম আবদুল ওয়াহ্হাব  বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান নিযুক্ত

মাগুরা-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অব:) এ টি এম আবদুল ওয়াহ্হাব ৩ বছর মেয়াদে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রেসিডেন্ট মো: আবদুল হামিদ বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি আদেশ, ১৯৭৩ (রাষ্ট্রপতির ১৯৭৩ সনের ২ নং আদেশ-এর ১০ (১) আর্টিকেল এ বর্ণিত ক্ষমতাবলে মেজর জেনারেল (অব:) এ টি এম আবদুল ওয়াহ্হাব-কে ৩ (তিন) বছর মেয়াদে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান নিয়োগ প্রদান করেছেন। উল্লেখ্য, গত ০৭ এপ্রিল ২০২১ তারিখে সোসাইটির তৎকালিন চেয়ারম্যান জনাব হাফিজ আহমদ মজুমদারের মেয়াদ শেষ হওয়ায় পদটি শূণ্য হয়।BDRCS CHAIRMAN NEW
বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ১৯৭৩ সালের রাষ্ট্রপতির আদেশ নং-২৬-এর ৯ (সি) (১) এর প্রদত্ত ক্ষমতাবলে বর্তমান ম্যানেজিং বোর্ড ভেঙ্গে ০৩ (তিন) মাসের জন্য ভাইস চেয়ারম্যান, ট্রেজারার ও ১২ জন সদস্যসহ মোট ১৪ সদস্য বিশিষ্ট এডহক ম্যানেজিং বোর্ড গঠন করা হয়েছে। এডহক ম্যানের্জিং বোর্ডের সদস্যবৃন্দরা হলেন, নুর-উর-রহমান (ভাইস চেয়ারম্যান), এম এ ছালাম (ট্রেজারার), সালাহ্ উদ্দিন আহমদ (ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য), বেগম আরমা দত্ত, এমপি (ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য), অধ্যাপক খান মো: আবুল কালাম আজাদ, ডা: রোকেয়া সুলতানা (ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য), মফিজুর রহমান বাবুল (ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য), মনজুরুল ইসলাম (ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য), রাজিয়া সুলতানা লুনা (ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য), ডা: মো: মোশারফ হোসেন (ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য), চৌধুরী সরোয়ার জাহান (ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য), মো: সেকান্দার আলী (ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য), প্রফেসার ডা: কনক কান্তি বড়ুয়া (ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য) ও মো: আব্দুল জলিল (ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য)।
মেজর জেনারেল (অব:) এ টি এম আবদুল ওয়াহ্হাব বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ায় সোসাইটির মহাসচিব, উপ-মহাসচিব, সোসাইটির সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী, স্বেচ্ছাসেবকবৃন্দ নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান ও নতুন এডহক ম্যানেজিং বোর্ডের সকল সদস্যবৃন্দকে প্রাণঢালা অভিনন্দন জানান এবং তাঁদের সফলতা কামনা করেন।
সমাজসেবক মেজর জেনারেল (অব:) এ টি এম আবদুল ওয়াহ্হাব ১৯৪৬ সালের ২৯ ডিসেম্বর মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলার টুপিপাড়া গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পিতামাতার ৮ সন্তানের মধ্যে মেজর জেনারেল (অব:) এ টি এম আবদুল ওয়াহ্হাব সর্ব জ্যেষ্ঠ। তিনি শ্রীপুর এম সি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক, কুষ্টিয়া সরকারি কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক এবং ১৯৬৭ সালে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) হতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন।
সোসাইটির নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব:) এ টি এম আবদুল ওয়াহ্হাব ১৯৬৮ সালে পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন। দীর্ঘ ৩৪ বছর তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে সফলভাবে দায়িত্ব পালন শেষে ২০০২ সালে চাকুরী থেকে অবসরে যান। সমাজ সচেতন ব্যক্তি হিসেবে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনে পৃষ্ঠপোষকতায় তাঁর রয়েছে তাৎপর্যপূর্ণ অংশগ্রহণ।
তিনি একজন খ্যাতনামা লেখক। তাঁর গ্রন্ত্রের মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হচ্ছে ‘Mukti Bahini Wins Victory ও The Lion of Bengal। এছাড়া বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় অসংখ্য প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়।
অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা এ টি এম আবদুল ওয়াহ্হাব আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে সক্রিয়ভাবে যুক্ত আছেন। তিনি ২০১৫ সালে ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন। তিনি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত হয়ে অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব:) এ টি এম আবদুল ওয়াহ্হাব মুক্তিযুদ্ধের সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন ও সাব সেক্টর কমান্ডারের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি মগুরা, ঝিনাইদহ ও রাজবাড়ীসহ পাশ্ববর্তী এলাকার বিভিন্ন রনাঙ্গনে সক্রিয় যুদ্ধ পরিচালনা করেন। এছাড়াও তিনি সাতক্ষীরা ও চুয়াডাঙ্গার দর্শনা এলাকায় শত্রুঘাটি দখলও করেন। তিনি ইউএসএ, কানাডা, ইউকে, সুইডেন, জার্মানী, ফ্রান্স, বেলজিয়াম, জাপান, চায়না, সুইজারল্যান্ড, কিংডম অব সৌদি এরাবিয়া, ইরান, ইউনাইটেড আরব এ্যামিরাটস্ , ইতালী, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, পাকিস্তান ও ইন্ডিয়াসহ বিভিন্ন দেশ সফর করেন।

About bdsomoy