সোমবার, মে ২০, ২০২৪
প্রচ্ছদঅর্থ ও বানিজ্য সময়ব্রিটিশ ইন্টারন্যাশনাল ইনভেস্টমেন্টের সাথে ব্র্যাক ব্যাংকের ৫০ মিলিয়ন ডলারের দীর্ঘ মেয়াদী ঋণের...

ব্রিটিশ ইন্টারন্যাশনাল ইনভেস্টমেন্টের সাথে ব্র্যাক ব্যাংকের ৫০ মিলিয়ন ডলারের দীর্ঘ মেয়াদী ঋণের চুক্তি  

যুক্তরাজ্যের উন্নয়ন আর্থিক সংস্থা এবং বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ব্রিটিশ ইন্টারন্যাশনাল ইনভেস্টমেন্ট (বিআইআই) বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় এসএমই ব্যাংক ব্র্যাক ব্যাংককে ৫০ মিলিয়ন ডলার ঋণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। বাংলাদেশের অর্থনীতির মূল ভিত্তি অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এমএসএমই) এবং নারী-নেতৃত্বাধীন ব্যবসায়ের উন্নয়নে ঋণটি গুরুত্বপূর্ণ তহবিল হিসেবে কাজ করবে।

১৩ মে ২০২৪ ঢাকায় ব্র্যাক ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে একটি আনুষ্ঠানিক স্বাক্ষর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার সারাহ কুক, ব্রিটিশ হাই কমিশনের ডেপুটি ডেভেলপমেন্ট ডিরেক্টর এবং হেড প্রসপ্রিটি অ্যান্ড ইকোনমিক গ্রোথ ডাঃ ডানকান ওভারফিল্ড, বেসরকারি খাত উন্নয়ন উপদেষ্টা শাহনূর শিকদার, বিআইআই- এর বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর রেহান রশিদ, ব্র্যাক ব্যাংকের চেয়ারপারসন মেহেরিয়ার এম. হাসান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও সেলিম আর. এফ. হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

২০০১ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে ব্র্যাক ব্যাংক ১৫ লক্ষ এমএসএমই গ্রাহকদের সেবা দিয়েছে এবং ঋণ বিতরণের এই হার আরও বাড়াতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এটি সমাজে ইতিবাচক প্রভাব বিস্তারকারী বিনিয়োগ এবং আর্থিক অন্তর্ভুক্তির জন্য বিশ্বব্যাপী সুপরিচিত প্রতিষ্ঠান ব্র্যাক এনজিও’র পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত।

এই বিষয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার সারাহ কুক বলেন, “আমি অত্যন্ত আনন্দিত যে, ব্রিটিশ ইন্টারন্যাশনাল ইনভেস্টমেন্ট (বিআইআই) বাংলাদেশের অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প এবং নারী-নেতৃত্বাধীন ব্যবসায়ের অর্থায়ন সহায়তায় ব্র্যাক ব্যাংককে সহায়তা দিচ্ছে। এটি বাংলাদেশের ছোট ব্যবসায় এবং নারী উদ্যোক্তাদের আরও বেশি অর্থনৈতিক সুযোগ এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এই বিনিয়োগ বাংলাদেশে অন্তর্ভুক্তিমূলক এবং টেকসই উন্নয়নে সহায়তার প্রতি যুক্তরাজ্যের প্রতিশ্রুতিকে তুলে ধরে। এটি বাংলাদেশের সাথে যুক্তরাজ্যের আধুনিক অর্থনৈতিক অংশীদারিত্বেরও প্রমাণ।”

বিআইআই- এর বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর রেহান রশিদ বলেন, “বাংলাদেশে ক্ষুদ্র ব্যবসায় এবং নারী উদ্যোক্তাদের সহায়তার লক্ষ্যে ব্র্যাক ব্যাংকের সাথে আবারও কাজ করতে পেরে আমরা গর্বিত। ২০১৯ সালে ব্র্যাক ব্যাংকে আমাদের প্রথম বিনিয়োগ করার পর থেকেই আমরা বাংলাদেশে অন্তর্ভুক্তির লক্ষ্যে আরও বেশি ঋণ দানের চেষ্টা করে আসছিলাম। ব্র্যাক ব্যাংকের মতো বিশ্বস্ত অংশীদারদের মাধ্যমে আমরা আরও বেশি মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারি, যাদের আমাদের অর্থ সহায়তা সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন এবং যারা প্রকৃত অর্থেই দেশের উন্নতি এবং সমৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখতে পারেন।”

এ বিষয়ে ব্র্যাক ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও সেলিম আর. এফ. হোসেন বলেন, “একটি এমএসএমই-কেন্দ্রিক ব্যাংক হিসেবে দেশের তৃণমূল উদ্যোক্তা এবং নারী উদ্যোক্তাদের জন্য সহজ ঋণের ব্যবস্থা নিশ্চিত করাই ব্র্যাক ব্যাংকের প্রধান লক্ষ্য। বিআইআই- এর প্রতিশ্রুতি ব্র্যাক ব্যাংককে বাংলাদেশের এমএসএমই এবং নারী-নেতৃত্বাধীন ব্যবসায়ে ঋণ সুবিধা দিতে সহায়তা করবে, যা তাঁদের ব্যবসায়কে সমৃদ্ধ করে তুলবে। এই ঋণ ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের তাঁদের পণ্যের ধরন বাড়াতে, পণ্যের নতুন নতুন বাজার  সৃষ্টিতে এবং গ্রামীণ অর্থনীতিকে চাঙ্গা করে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে সহায়তা করবে। যুক্তরাজ্যের উন্নয়ন অর্থ সংস্থার সাথে আমাদের চমৎকার অংশীদারিত্বের লক্ষ্য হলো অর্থায়ন সেবার বাইরে থাকা দেশের অনুন্নত ব্যবসায়গুলোর জন্য সুযোগ সৃষ্টি করা। বিআইআই থেকে পাওয়া ৫০ মিলিয়ন ডলার বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভকেও আরও শক্তিশালী করে তুলবে।”

এই বিনিয়োগ জেন্ডার-ইক্যুয়ালিটির ওপর জাতিসংঘের এসডিজি-৫, নিরাপদ কাজ এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ওপর এসডিজি-৮ এবং শিল্প, উদ্ভাবন ও অবকাঠামোর ওপর এসডিজি-৯ লক্ষ্যমাত্রার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ