মঙ্গলবার, মে ২১, ২০২৪
প্রচ্ছদজাতীয়সৌদিতে ইকামা পরিবর্তনের সুযোগ ৩ জুলাই পর্যন্ত

সৌদিতে ইকামা পরিবর্তনের সুযোগ ৩ জুলাই পর্যন্ত

সৌদি আরব সরকার সেদেশে বসবাসরত অন্যান্য দেশের নাগরিকদের ন্যায় বাংলাদেশি নাগরিকদেরও ইকামা পরিবর্তন এবং বিভিন্ন কারণে অবৈধ হয়ে যাওয়া বাংলাদেশি নাগরিকদের আগামী ৩ জুলাই ২০১৩ পর্যন্ত বৈধ হওয়ার সুযোগ প্রদান করবে। ইকামা পরিবর্তন, অবৈধ কর্মীদের বৈধতা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে যাদের ওয়ার্ক পারমিটের (ইকামা) মেয়াদ ৬ এপ্রিল ২০১৩ তারিখের আগে শেষ হয়ে গেছে তারা কোনোরকম শাস্তি এবং জরিমানা ছাড়া আগের নিয়োগকর্তার (কফিল) কাছে ফেরত যেতে পারবেন অথবা নতুন নিয়োগকর্তার কাছে ট্রান্সফার হতে পারবেন। যারা তাদের কফিলের কাছ থেকে পালিয়ে গেছেন (হুরুপপ্রাপ্ত), তারা সমঝোতার মাধ্যমে পূর্বের কফিলের কাছে ফিরে যেতে পারবেন অথবা নতুন নিয়োগকর্তার কাছে ট্রান্সফার হতে পারবেন, গৃহকর্মীরা ইমিগ্রেশন বিভাগ (জাওয়াজাত) এবং কোম্পানির কর্মীরা শ্রম অফিসের (মক্তব আল আমেল) মাধ্যমে ট্রান্সফার হতে পারবেন, যাদের কফিল নেই, তারাও একই পদ্ধতি অনুসরণ করে নতুন কফিলের কাছে কাজ নিয়ে নিয়মিত হতে পারবেন অথবা এক্সিট ভিসা নিয়ে দেশে ফিরে যেতে পারবেন। হজ এবং ওমরাহ্‌ ভিসায় এসে অবৈধ হওয়াদের বৈধ হওয়ার প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে যারা ৩ জুলাই ২০০৮ এর আগে হজ অথবা ওমরাহ্‌ ভিসায় এসে থেকে গেছেন তারা বর্তমান সুযোগ গ্রহণ করে কাজে নিয়োজিত হতে পারবেন, হজ এবং ওমরাহ্‌ ভিসায় এসে থেকে যাওয়া ব্যক্তিরা গৃহকর্মী হিসেবে কাজে নিয়োজিত হতে পারবেন। এক্ষেত্রে জাওয়াজাতের মাধ্যমে বৈধতা গ্রহণ করতে হবে, তারা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানেও কাজ করতে পারবেন। তবে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে শ্রমিক হিসেবে কাজ করার ক্ষেত্রে প্রথমে তাদের তথ্য জাওয়াজাতে লিপিবদ্ধ করতে হবে। তারপর শ্রম দপ্তর সংশ্লিষ্ট কাজে নিয়োগের উপযুক্ততা যাচাই করে তাদেরকে নিয়োগের অনুমতি প্রদান করবে, যারা ৩ জুলাই ২০০৮ এর পরে হজ অথবা ওমরাহ্‌ ভিসায় এসে থেকে গেছেন, তাদের আউটপাস নিয়ে দেশে ফিরে যেতে হবে। ইকামা ট্রান্সফারের প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে বর্তমান নিয়োগকর্তা ইকামা চালু না করলে অন্য নিয়োগকর্তার কাছে ট্রান্সফার হওয়া যাবে, বৈধভাবে নিয়োজিত গৃহকর্মীরা কোন প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে ট্রান্সফার হতে চাইলে তাদেরকে বর্তমান কফিলের কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে শ্রম অফিসের মাধ্যমে ট্রান্সফার হতে হবে, কোম্পানি নিজ অফিস থেকেই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে ইকামা ট্রান্সফার করে নিতে পারবে। যেসব কোম্পানির পাসওয়ার্ড নেই সেসব কোম্পানির প্রতিনিধি শ্রম অফিসে গিয়ে প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে ইকামা ট্রান্সফার করাতে পারবেন, বৈধভাবে কর্মরতদের ইকামার মেয়াদ উর্ত্তীণ না হয়ে থাকলে বর্তমান কফিলের অনুমতি নিয়ে ইকামা ট্রান্সফার করতে পারবেন।

অবৈধ হয়ে যাওয়া বিদেশিদের দেশে ফিরে যাওয়ার প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যথাইকামার কপি অথবা পাসপোর্টের ভিসার কপি অথবা ফিঙ্গারপ্রিন্টের কপি অথবা জাওয়াজাত প্রিন্টের কপিসহ দূতাবাস কর্তৃক ইস্যুকৃত আউটপাস জমা দিয়ে এক্সিট ভিসা গ্রহণ করতে হবে, এভাবে এক্সিট ভিসা নিয়ে দেশে যাওয়ার ক্ষেত্রে কোনোরকম ফি কিংবা জরিমানা দিতে হবে না।

পুরাতন পাসপোর্ট নবায়ন, নতুন পাসপোর্ট ইস্যু এবং আউটপাস প্রদানের জন্য রিয়াদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস এবং জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল বিশেষ কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। বিচ্চারিত তথ্যের জন্য বাংলাদেশ দূতাবাস, নর্থ অরুবা স্ট্রিট, আলওয়ারুদ কোয়ার্টার্স, সুলাইমানিয়া, রিয়াদ, সৌদি আরব। ফোন : ৪১৯৫৩০০, ৪১৯২৯৫৪, ১২১৫২০৯১। বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল, কিলো, মক্কা রোড, নাজলাহ্‌ ডিস্ট্রিক্ট, জেদ্দা, সৌদি আরব। ফোন : ৬৮৭৮৪৬৫, ৬৮৯৪৭১২, ৬৩৩৫০৮২ নম্বরে যোগাযোগ করা যাবে।খবর তথ্য বিবরণীর।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ