সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২৪
প্রচ্ছদআরো খবর......বন্দরে দেড় কোটি টাকা মূল্যের ফটোকপিয়ার মেশিন জব্দ

বন্দরে দেড় কোটি টাকা মূল্যের ফটোকপিয়ার মেশিন জব্দ

port pothocopyচট্টগ্রাম বন্দরে আনা ওজন মাপক যন্ত্রের কন্টেনারে মিলেছে আমদানি নিষিদ্ধ পুরাতন ফটোকপিয়ার মেশিন ! মিথ্যা ঘোষণায় প্রায় আনা দেড় কোটি টাকা মূল্যের তশিবা ব্র্যান্ডের ৮৬ ইউনিট পুরোনো ফটোকপিয়ার মেশিন জব্দ করা হয়। গতকাল বন্দরের সিসিটি ইয়ার্ডে শতভাগ কায়িক পরীক্ষার পর চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস কর্তৃপক্ষ এ তথ্য দেন। নগরীর ১৮০৮ আগ্রাবাদ শেখ মুজিব রোড সালেহ ম্যানশন (৩য় তলা) ঠিকানার মেসার্স যোশি ট্রেডিং নামের একটি প্রতিষ্ঠান চালানটির আমদানিকারক। আর তাদের আমদানি করা চালানটি বন্দর থেকে খালাসের দায়িত্ব ছিল নগরীর খাতুনগঞ্জ আমির মার্কেট বাগদাদী বিল্ডিং ঠিকানার মেসার্স শাইনী সিএন্ডএফ লিমিটেড (এআইএন নং৩০১৭৯০৯১৩)। গত ১৬ জুন সিঙ্গাপুর থেকে একটি ২০ ফুট দৈর্ঘ্যের কন্টেনারে (নম্বরজিইএসইউ ৩১০৭৭৪৩) ৯৫ ইউনিট ওজন মাপকযন্ত্র (ওয়েটিং মেশিন) আমদানির ঘোষণা দিয়ে কাস্টমস হাউসে আমদানি দলিলাদি দাখিল করা হয়।

আমদানিকৃত এই চালানটিতে অনিয়ম করা হয়েছে এমন গোপন খবরের ভিত্তিতে গত মঙ্গলবার চালানের খালাস কার্যক্রম স্থগিত করে দেয় কাস্টমস হাউসের এআইআর (অডিট ইনভেস্টিগেশন এন্ড রিসার্চ) শাখা। আর গতকাল বুধবার বন্দরের সিসিটি ইয়ার্ডে শতভাগ কায়িক পরীক্ষা সম্পন্ন করে জালিয়াতির বিষয়টি নিশ্চিত করে কাস্টমস হাউস কর্তৃপক্ষ।

গতকাল এ বিষয়ে কথা হলে চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের যুগ্মকমিশনার মাহমুদুল হাসান বলেন, সিঙ্গাপুর থেকে ওজন মাপকযন্ত্র আমদানির ঘোষণা থাকলেও কন্টেনারটি খুলে আমদানি নিষিদ্ধ পুরোনো ফটোকপিয়ার মেশিন পাওয়া গেছে। যার বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় দেড় কোটি টাকা। এ অনিয়মে জড়িত আমদানিকারকসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে দি কাস্টমস এ্যাক্ট আইনে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ