মঙ্গলবার, মে ২১, ২০২৪
প্রচ্ছদচট্রগ্রাম প্রতিদিনচট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় পুলিশের সঙ্গে জামায়াত-শিবিরের ক্যাডারদের বন্দুকযুদ্ধ

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় পুলিশের সঙ্গে জামায়াত-শিবিরের ক্যাডারদের বন্দুকযুদ্ধ

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে জামায়াত-শিবিরের ক্যাডারদের বন্দুকযুদ্ধ হয়েছে। এসময় পুলিশ দুর্ধর্ষ শিবির ক্যাডার মো.ইকবালকে (৩২) আহত অবস্থায় তার আরও  চার সহযোগীসহ আটক করেছে। তাদের কাছ থেকে বেশকিছু অস্ত্রশস্ত্র পাওয়া গেছে।

বুধবার ভোর সাড়ে ৩টার দিকে সাতকানিয়ার এওচিয়া ইউনিয়নের চূড়ামণি এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) মো.ইলতুৎমিশ বলেন, ‘দুর্ধর্ষ শিবির ক্যাডার ইকবালের নিজস্ব একটি বাহিনী আছে। তারা ডাকাতি, খুনসহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধ করে। আবার জামায়াত-শিবিরের কর্মসূচীতেও সহিংসতা সৃষ্টি করে। তাদের গ্রেপ্তার অভিযানের সময় পুলিশের সঙ্গে হালকা বন্দুকযুদ্ধ হয়েছে। এতে ইকবাল সামান্য আহত হয়েছে।’

আটক পাঁচজন হল, সাতকানিয়া উপজেলার দক্ষিণ কাঞ্চনা গ্রামের আবুল ‍মোমেনের ছেলে মো.ইকবাল (৩২), মধ্যম কাঞ্চনা গ্রামের আমির হোসেনের ছেলে মো.নাসির (৪৫), দক্ষিণ কাঞ্চনা গ্রামের সুলতান আহমদের ছেলে ছগির আহমেদ (২৩), চূড়ামণি গ্রামের জহুরুল ইসলামের ছেলে মো.আরিফ (২২) এবং দক্ষিণ কাঞ্চনা গ্রামের মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে আবু সুফিয়ান (২২)।

তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা অস্ত্রশস্ত্রের মধ্যে আছে, ৩টি বিদেশি বন্দুক, দু’টি রামদা, একটি বড় ছোরা এবং বেশকিছু ডাকাতির সরঞ্জাম।

সাতকানিয়া থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ইয়ামিন সুমন জানান, মঙ্গলবার শেষ রাতের দিকে জামায়াত-শিবিরের ক্যাডাররা এওচিয়া ইউনিয়নের চূড়ামণি এলাকায় জনৈক ইকবালের খামারের পাশে জড়ো হয়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সাতকানিয়া থানার এএসআই কাজী শফিক আহমেদের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ওই এলাকায় অভিযান চালাতে যায়। পুলিশ সদস্যরা তাদের চারদিক থেকে ঘিরে ফেললে ইকবালসিহ তার বাহিনীর সদস্যরা এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়তে থাকে। পুলিশও পাল্টা গুলি ছুঁড়ে।

প্রতিরোধের মুখে জামায়াত-শিবিরের ক্যাডারেরা পালাতে চাইলে ধাওয়া দিয়ে বাহিনী প্রধান ইকবালসহ পাঁচজনকে আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ। আটকের পর সামান্য আহত ইকবালকে চিকিৎসার জন্য স্থানীয় হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান এএসআই ইয়ামিন সুমন।

সাতকানিয়া থানার ওসি আব্দুল লতিফ বলেন, ‘আটক ইকবাল সাতকানিয়া থানার তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। আটক সবাই জামায়াত-শিবিরের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। তারা বিভিন্ন সময় সাতকানিয়াসহ আশপাশের এলাকায় বিভিন্ন ধরনের নাশকতামূলক কর্মকান্ড করছে।’

আরও পড়ুন

সর্বশেষ