সোমবার, জুন ১৭, ২০২৪
প্রচ্ছদইন্টারভিউভারত থেকে চাওয়া-পাওয়ার প্রশ্নে প্রাণবন্ত বির্তর্কে জড়ালেন জাতীয় সংসদের সদস্যরা

ভারত থেকে চাওয়া-পাওয়ার প্রশ্নে প্রাণবন্ত বির্তর্কে জড়ালেন জাতীয় সংসদের সদস্যরা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ভারত থেকে চাওয়া-পাওয়ার প্রশ্নে প্রাণবন্ত বির্তর্কে জড়ালেন জাতীয় সংসদের সদস্যরা। বর্তমান সরকারের সময়ে ভারতকে কী সুবিধা দেয়া হয়েছে? বিনিময়ে ভারত থেকে নিজেদের ন্যায হিস্যার কতটুকু পাওয়া গেছে? বিরোধীদলের সাংসদের এমন প্রশ্নের জবাবে সরকার দলের দাবি ভারতের কাছ থেকে যতটুকু আদায় করা গেছে তা আওয়ামী লীগেই করেছেন। বুধবার জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে এ বিতর্কের সূত্রপাত হয়। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও অংশ নেন এ বিতর্কে।শুরুতেই ব্যক্তিগত কৈফিয়ত পর্বের আলোচনার পর পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে বিএনপির সাংসদ মওদুদ আহমেদ গঙ্গা পানি চুক্তি নিয়ে সরকারের প্রশংসা করেন। এ সময় তিনি বলেন, গঙ্গা পানি চুক্তি নিয়ে যখন ভারতের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে তখন সেখানে আমিও ছিলাম। আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সাংসদ তোফায়েল আহমেদ সে সময় এ নিয়ে প্রথম কথা বলেছিলেন। তিনি সেদিন জোরাল ভূমিকা রেখেছিলেন। আমরা সেদিন দেশের স্বার্থে একমত হয়েছিলাম। কিন্তু বর্তমান সরকার ভারতকে সব দিয়ে দিয়েছে। কিছু আদায় করতে পারেনি। এটা হয়েছে নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণে। বিরোধী দল হিসেবে আমি একে সফলতা না বলে ব্যর্থতাই বলব। সরকার এ ক্ষেত্রে ব্যর্থ হয়েছে।

পরে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ভারতের সঙ্গে যখন গঙ্গা পানি চুক্তি নিয়ে কথা বলেছিলাম সেদিন আওয়ামী লীগ-বিএনপি ভুলে আমরা এক হয়েছিলাম। নিজেদের স্বার্থে এক হয়ে দাবি তুলেছিলাম।
ফ্লোর নিয়ে দপ্তরবিহীন মন্ত্রী সুরঞ্জিত ‍সেনগুপ্ত বলেন, মওদুদ আহমেদ এতদিন পর এসে সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। কিন্তু সেদিন আমরা চুক্তি করেছিলাম, ১৬ হাজার কিউসেকের জায়গায় ৩৪ হাজার কিউসেক পানি আনার চুক্তি করেছিলাম, সেদিন মওদুদ আহমেদের দল সংসদে এর বিরোধীতা করেছিলেন।এক সময় তারা পার্বত্য চুক্তির প্রশংসা করবেন।
মওদুদ আহমদ আবারও সময় চান। স্পিকার তাকে সময় দিলে তিনি বলেন, ‘গঙ্গা পানি বণ্টন চুক্তি সম্পর্কে আমাদের তখন যে আপত্তি ছিল, এখনও আছে।’ টিপাইমুখ বাঁধের বিষয়ে মওদুদ বলেন, ‘টিপাইমুখ চুক্তির আগে আমাদের সেখানে যাওয়া দরকার। চলুন আমরা সেখানে যাই। প্রকৃত অবস্থা দেখে এসে ভালমন্দ সংসদকে জানাই।

পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দাঁড়িয়ে বলেন, ভারতের কাছ থেকে আদায় করলে আওয়ামী লীগই করে। ৯১ সালে খালেদা জিয়া গঙ্গার পানি চুক্তির কথা বলতে ভুলে গিয়েছিলেন। টিপাইমুখ তো আজ শুরু হয়নি। কতো আগে। টিপাইমুখ নিয়ে কেউ টু শব্দ করেননি। প্রথম আন্দোলন শুরু করেছেন আমাদের অর্থমন্ত্রী। আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল পাঠাই। বিরোধী দলের কাছ থেকে সদস্য চেয়েছিলাম, ওনারা যাননি। বিরোধী দল ক্ষমতায় থাকলে ভারত, প্রীতি আর ক্ষমতার বাইরে থাকলে ভারতবিরোধী।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ