মঙ্গলবার, মে ২১, ২০২৪
প্রচ্ছদআরো খবর......চট্টগ্রামে বেড়েছে রক্তদান, রয়েছে অনেক মাদকসেবী দাতাও

চট্টগ্রামে বেড়েছে রক্তদান, রয়েছে অনেক মাদকসেবী দাতাও

CTG BLD DONARবন্দরনগরী চট্টগ্রামে দিন দিন বাড়ছে স্বেচ্ছায় রক্তদানকারীর সংখ্যা। নানা ধরনের সচেতনতামূলক প্রচারণাই এ ক্ষেত্রে মূল ভূমিকা পালন করছে। তবে পেশাদার ও মাদকাসক্ত রক্তদাতার সংখ্যাও কম নয়। এ অবস্থায় স্বেচ্ছায় রক্তদাতার সংখ্যা বাড়াতে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানোর আহবান জানান চিকিৎসকরা। পার্থ প্রতীম বিশ্বাসের প্রতিবেদন।

পেশায় পরিচ্ছন্নতাকর্মী হলেও, ফাতেমা বেগম রেড ক্রিসেন্ট কেন্দ্রে স্বেচ্ছায় রক্তদাতাদের একজন রিংকু মল্লিক। অর্থের জন্য নয়, শুধু মানবিকতা থেকেই তিনি অসহায় মানুষকে ৩০ বারের বেশি স্বেচ্ছায় রক্তদান করেছেন।

চট্টগ্রামে প্রতি বছর ১ লাখ ব্যাগ রক্তের প্রয়োজন হয়। এর বেশির ভাগ পূরণ করা হয় বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সংগ্রহ করা রক্ত থেকে। প্রতিদিন রেড ক্রিসেন্টে স্বেচ্ছায় রক্ত দিচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ জন, সন্ধানীতে ৫ থেকে ১০ জন এবং লায়ন্সে ১৫ থেকে ২০ জনের মত।

সন্ধানীর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ইউনিটের সাংগঠনিক সম্পাদক বিবেক দেব বলেন, এখানে তারা প্রতিদিন ১০-১২ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করেন। প্রতি মাসে প্রায় ৭ হাজার ব্যাগ রক্ত তারা রোগিদের দিয়ে থাকেন।

ফাতেমা বেগম রেড ক্রিসেন্ট রক্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ডা. মোহাম্মদ মিনহাজ উদ্দীন তাহের বলেন, প্রতিদিন এখানে ৩শ’ থেকে সাড়ে ৩শ’ ব্যাগ রক্তের দরকার হয়। রেড ক্রিসেন্ট প্রায় ৭০ ব্যাগ সরবরাহ করে থাকে।

শুধুমাত্র মানবিকতা থেকে প্রতি চার মাস পর পর রক্ত দান করেন এখানে আসা অনেক তরুণ। তবে পেশাদার রক্তদাতাদের মধ্যে অধিকাংশই মাদকাসক্ত বলে জানান, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা. এ এম এম মিনহাজুর রহমান।

নিরাপদ রক্ত পরিসঞ্চালন আইন-২০০২ এর আলোকে কোনো মাদকাসক্ত, পেশাদার রক্তদাতার রক্ত যাতে গ্রহণ করা না হয় সে ব্যাপারে কঠোর নির্দেশনা দেয়া আছে বলে জানান, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের রক্ত পরিসঞ্চালন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. সৈয়দ আহমদ।

চিকিৎসকরা বলছেন, রক্ত দান নিয়ে যেসব কুসংস্কার, ভয় কিংবা বাধা রয়েছে, সেসব বাধা দূর করা গেলে স্বেচ্ছায় রক্তদাতাদের সংখ্যা আরো বাড়বে। কমে আসবে পেশাদার রক্তদাতাদের সংখ্যা।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ