শনিবার, জুলাই ১৩, ২০২৪
প্রচ্ছদআরো খবর......অনেক মানুষের চেয়ে ইসলামপন্থীরা কম ভণ্ড - তসলিমা নাসরিন

অনেক মানুষের চেয়ে ইসলামপন্থীরা কম ভণ্ড – তসলিমা নাসরিন

taslimaঅনেক মানুষের চেয়ে ইসলামপন্থীরা কম ভণ্ড। আর এ কারনেই ভারত উপমহাদেশের তথাকথিত ইসলামবিরোধী, ধর্মনিরপেক্ষতাবাদী ও আধুনিকদের চেয়ে ইসলামপন্থীদের অনেক বেশি পছন্দ করেন তিনি। একথা বলেছেন, বিতর্কিত ও নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

তসলিমা নাসরিন তার তার ফ্রি থট ব্লগে নো কাট্রি ফর ওমেন পেজে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক কিছু বিষয়ের ওপর আলোকপাতকালে এ কথা বলেন।

হেফাজতে ইসলাম ও তালেবানদের মত ইসলামপন্থীদের প্রসঙ্গে তসলিমা বলেছেন, ভারত উপমহাদেশের তথাকথিত ইসলামবিরোধী, ধর্মনিরপেক্ষতাবাদি ও আধুনিকদের চেয়ে ইসলামপন্থীদের অনেক বেশি পছন্দ করেন তিনি। অনেক মানুষের চেয়ে ইসলামপন্থীরা কম ভন্ড। তারা তাদের মনের কথা বলে । তারা যখন হত্যা করতে চায়, তখন তারা বলে আমি হত্যা করতে চাই। তারা দাবি করে না তারা খুব ভালো, তারা সহিংসতার বিরুদ্ধে। অথচ অন্যরা হত্যা করে গোপনে। তারা মুখোশ পরে অথচ ইসলামপন্থীরা প্রকাশ্যে হত্যা করে। তারা সেটি বলে না যা তারা বিশ্বাস করে না। অন্য যা বিশ্বাস করেনা তা বলে।

তসলিমা তালেবানদের প্রচারিত একটি সাক্ষৎকারের উদাহরণ তুলে ধরে বলেন, তারা সব সময় সত্য কথা বলে। তালেবানরা পরিষ্কার বলে যে গণতন্ত্র ইসলাম বিরোধী। তারা ধর্মতান্ত্রিক রাষ্ট্রের পক্ষে। তারা সপ্তম শতাব্দির আইনের পক্ষে। তারা চায় মেয়েরা বোরকা পড়বে ও পুরুষের নিয়ন্ত্রনে থাকবে। মেয়েদের সমঅধিকার ও স্বাধীনতা থাকবে না । তবে তারা ভারত উপমহাদেশের অধিকাংশ ধর্মনিরপেক্ষতাবাদি রাজনীতিবীদদের মতো কপট নয় যারা বলে ধর্মনিরপেক্ষতাবাদ ইসলামবিরোধী নয়।

ইসলামপন্থীরা অধিকাংশ ধর্মনিরপেক্ষতাবাদি রাজনীতিবীদদের মতো কপট নয় যারা বলে আমরা ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র ও সমাজ প্রতিষ্ঠা করবো, নারী সমতার জন্য সককিছু করবো। কিন্তু আসলে কিছুই করে না। ইসলামপন্থীরা ধর্মনিরপেক্ষতাকে ঘৃণা করে। তারা ভালো করেই জানে ধর্মনিরপেক্ষতা, গণতন্ত্র নারী অধিকার ইসলামে গ্রহণযোগ্য নয়। ইসলামপন্থীরা হত্যা করে, ধংস করে, সম¯ত্ম পৃথিবীকে আতংকিত করে। তারা অস্বীকার করে না আল্লাহ তাদের নাস্তিকদের ও অমুসলিমদের হত্যার কথা বলেছে। তারা মিথ্যা বলে না, তারা বলে না সন্ত্রাসীদের কোনো ধর্ম নেই। তারা দাবি করে না ইসলাম শুধুই শান্তির ধর্ম।

সাভারে ভবন ধসে নিহতদের ব্যাপারে তসলিমা লিখেছেন, মারা যাওয়া খুব সহজ। কিন্তু তারা বাঁচতে চেয়েছিল। তাদের কারো বাঁচার জন্য অঙ্গহানি করা দরকার ছিল। কিন্তু না, কেউ তাদের দেখেনি। সাভারের ওই মর্মান্তিক ঘটনায় তিনিও মর্মাহত।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ