ব্রেকিং নিউজ

বঙ্গবন্ধুর ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী পালন করেছে বাংলাদেশ কন্‌স্যুলেট জেনারেল, হংকং

যথাযোগ্য মর্যাদায় ও ভাবগাম্ভীর্যের সাথে স্বাধীনতার মহান স্থপতি, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস আজ ১৫ আগস্ট ২০২২ তারিখে পালন করেছে বাংলাদেশ কন্‌স্যুলেট জেনারেল, হংকং। দিনের শুরুতে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করে রাখা হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন করেন মান্যবর কনসাল জেনারেল, মিজ্‌ ইসরাত আরা। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন কনসাল (শ্রম), জনাব জাহিদুর রহমান। অনুষ্ঠানের প্রারম্ভে পবিত্র কোরআন হতে তেলাওয়াত করা হয়। এরপর উপস্থিত সকলে দাঁড়িয়ে  এক মিনিট নিরবতা পালন করেন। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত বাণী পাঠ করা হয়। এরপর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উপর নির্মিত “Bangabandhu forever in our heart” প্রামাণ্য চিত্রটি প্রদর্শন করা হয়।

মূল আলোচনা পর্বে অনলাইনে সংযুক্ত অধ্যাপক আকতার হোসেন, বঙ্গবন্ধুর রাজনীতিক জীবন, বাংলাদেশের স্বাধীকার আন্দোলনে তাঁর বিচক্ষণ নেতৃত্ব, বঙ্গবন্ধুর সফল পররাষ্ট্রনীতি সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ হংকং শাখার সভাপতি ও অন্যান্য সদস্য নেতৃবৃন্দ এবং হংকংস্থ বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্মসহ কমিউনিটির অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। মুক্ত আলোচনায় বক্তারা বঙ্গবন্ধুর খুনীদের বিচার করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান।

মান্যবর কনসাল জেনারেল তাঁর বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের নির্মম ভাবে হত্যা বাঙালী জাতির ইতিহাসের সবচেয়ে জঘন্য ও বর্বরোচিত ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও তাঁর আদর্শকে হত্যা করতে পারেনি। বঙ্গবন্ধুর অপরিসীম দেশপ্রেম ও প্রেরণায় উদ্ধুদ্ধ হয়ে তাঁর স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ গড়তে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ট নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রুপকল্প-২০৪১ গড়তে তিনি সকলকে উদাত্ত আহবান জানান। অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে শহীদ সকলের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

About bdsomoy