ব্রেকিং নিউজ

নান্দনিক আয়োজন ও বর্ণাঢ্য উপস্থাপনায় “চট্টগ্রাম কলেজ গৌরবের ১৫০ বছর”সম্প্রীতি মেলা অনুষ্ঠিত

“চট্টগ্রাম কলেজ আমার-আমাদের কলেজ, গৌরবের ১৫০ বছর” এই স্লোগানকে সামনে নিয়ে সম্প্রীতি,প্রাণের উচ্ছাস,নান্দনিক আয়োজন ও বর্ণাঢ্য উপস্থাপনায় পালিত হলো দেশের অন্যতম সেরা বিদ্যাপীট  চট্টগ্রাম কলেজের “গৌরবের ১৫০ বছর সম্প্রীতি মেলা । এই আয়োজনকে ঘিরে চট্টগ্রাম কলেজ প্রাক্তনদের সম্প্রীতি ,বিনোদন ও কল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রাম কলেজ ফাউন্ডেশনের আয়োজনে চট্টগ্রাম কলেজ প্রাক্তন ও বর্তমান ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে ২৭ ডিসেম্বর’১৯ চট্টগ্রাম জি.ই.সি কনভেনশন হল সম্প্রীতি মেলা ২০১৯  যেন মুখরিত এক অসাধারণ তারুণ্যের উপস্থাপন । চট্টগ্রাম কলেজ প্রাক্তন ছাত্র সমিতির তিনবারের সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম কলেজ ফাউন্ডেশানের উপদেষ্ঠা সাখাওয়াত হোসেন মজনু, চট্টগ্রাম কলেজ ফাউন্ডেশনের সভাপতি সাবেক কাউন্সিলর শহিদুল আলম,কার্যকরী সভাপতি এসএম মোরশেদ জাফর, সাধারণ সম্পাদক বিশিষ্ট সংগঠক কবি নিজাম উদ্দিন শারুদ এর পরিকল্পনায়, প্রফেসর অধ্যক্ষ মোঃ আবুল হাসান এর নেতৃত্বে প্রকাশনা উপ কমিটি,কায়েস চৌধুরীর নেতৃত্বে অর্থ উপকমিটি, মোঃ সদরুল আমিন এর নেতৃত্বে নেতৃত্বে অভ্যর্থনা  উপকমিটি, মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমানের নেতৃত্বে প্রচার ও মিডিয়া উপকমিটি, অমিতোষ সেনের নেতৃত্বে অর্ভ্যথৃনা উপ কমিটি,এডভোকেট কাওসার পারভীন হক (জুলু) নেতৃত্বে র‌্যাফেল ড্র উপকমিটি , আনোয়ার শহীদ ফরহাদ  নেতৃত্বে সাজসজ্জা উপকমিটি, মহিউদ্দিন এনায়েত ও হেলাল উদ্দিন আহমেদ চৌধুরীর নেতৃত্বে শৃঙ্খলা উপকমিটি ,আহমদ উল আলম চৌধুরী রাসেলের নেতৃত্বে আপ্যায়ন উপকমিটি  শাফায়াত সুলতানার নেতৃত্বে স্বাংস্কৃতিক উপ কমিটি ,অধ্যাপক মর্জিনা আখতার’র নেতৃত্বে উপস্থাপনা উপ কমিটির সমন্বয়ে সকাল ৮ টা হতে রাত ১১:৩০ পর্যন্ত এক অনন্য আয়োজন ছিল “চট্টগ্রাম কলেজ গৌরবের ১৫০ বছর সম্প্রীতি মেলা ২০১৯”। সম্প্রীতি মেলায়  অংশগ্রহনকারীদের জন্য ছিল আকর্ষণীয় সূভেনিয়র- ম্যাগাজিন,টি শার্ট,ক্যাপ,কোর্ট পিন ও ক্যালেন্ডার । ছিল সকালের নাস্তা মধ্যাহ্ন ভোজ ও বৈকালিক নাস্তা ও রাতের খাবারের অনন্য ব্যবস্থাপনা ।সাথে ছিল ক্যাডেট ফোরাম ও দূর্বারের ব্যবস্থাপনায় দিন ব্যাপী বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ।WhatsApp Image 2019-12-28 at 9.14.56 PM (1)

বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশগ্রহনকারী  বীর সেনানী মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে নিয়ে বেলুন ও শান্তির প্রতিক পায়রা উড়িয়ে শুরু হয় চট্টগ্রাম কলেজের “গৌরবের ১৫০ বছর সম্প্রীতি মেলা ২০১৯ ।ফাউন্ডেশানের সাংস্কৃতিক দলের সমবেত কন্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনার মাধ্যমে শুরু হয় সম্প্রীতি মেলার। সবার কাছে পৌছে দেওয়া হয় চট্টগ্রাম কলেজ ফাউন্ডেশনের অনন্য ডকোমেন্টারী চট্টগ্রাম কলেজ গৌরবের  ১৫০ বছর ইতিহাস  ঐতিহ্যের স্বারক গ্রন্থ যেটি উৎসর্গ করা হয় হাজার বছরের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি উনার জন্মশত বার্ষিকীর শুভ প্রাক্কালে । অধ্যাপক মর্জিনা আকতার,মাসুম উদ দৌলা চৌধুরী, বদরুন্নেছা ও মিশকাতের সঞ্চালনায়  চট্টগ্রাম কলেজের সার্ধশত বছর উদযাপন উপলক্ষ্যে চট্টগ্রাম কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ মোঃ আবুল হাসানের লিখিত  এবং সুরে থীম সংগীতের পরিবশেনার মাধ্যমে আনুষ্টানিক কর্মকান্ড যা নির্মিত হয় প্রখ্যাত ওস্তাদ হাসান ঈসমাইলের তত্বাবধানে এবং পরিবেশনায় নেতৃত্ব দেন সাফায়াত সুলতানা নুপুর ও চট্টগ্রাম কলেজের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন  চট্টগ্রাম কলেজ ফাউন্ডেশানের কার্যকরী সভাপতি এসএম মোরশেদ জাফর, ফাউন্ডেশানের সাম্প্রতিক কার্যক্রম নিয়ে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম কলেজের “গৌরবের ১৫০ বছর সম্প্রীতি মেলার আহবায়ক ও চট্টগ্রাম কলেজ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক বিশিষ্ট সংগঠক কবি নিজাম উদ্দিন শারুদ ।শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম কলেজ ফাউন্ডেশনের সভাপতি সাবেক কাউন্সিলর শহিদুল আলম, ,সার্ধশত বর্ষ উদযাপনের বিষয়ে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ মোঃ আবুল হাসান,প্রাক্তন অধ্যক্ষ ফজলুল হক,প্রাক্তন শিক্ষক প্রফেসর এটিএম ছালেহ জহুর,প্রফেসর সুধীর বিকাশ দেব । এর পর চট্টগ্রাম কলেজ “গৌরবের ১৫০ বছর”সম্প্রীতি মেলার অন্যতম পৃষ্ঠপোষক দেশের শীর্ষ স্থানীয় শিল্প উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ী অনলবর্ষী বক্তা পিএইচপি ফ্যামিলির মাননীয় চেয়ারম্যান বিশিষ্ঠ সুফি ব্যাক্তিত্ব আলহাজ্ব সুফি মুহাম্মদ মিজানুর রহমান সম্প্রীতি মেলায় উপস্থিত সতীর্থ প্রাক্তন ও নতুন প্রজন্মের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মোটিবেশনাল বক্তব্য উপস্থাপন করেন এবং  চট্টগ্রাম কলেজ ফাউন্ডেশনের এক (১) কোটি টাকা ফান্ড গঠনের প্রাক্কালে প্রথম অনুদানকারী হওয়ার কথা ঘোষনা করেন ।পর্যায়ক্রমে শুরু হয় চট্টগ্রাম কলেজের শিক্ষার্থী,বিএনসিসি ক্যাডেট ও প্রাক্তনদের মাসব্যাপী অনুশীলনের মাধ্যমে প্রখ্যাত ওস্তাদ হাসান ঈসমাইলের তত্বাবধান ও সাফায়াত সুলতানা নুপুর এর দিক নির্দেশনায় স্বাংস্কৃতিক পরিবেশনা ।মহান মুক্তিযুদ্ধে বীর শহীদ মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ বুদ্ধিজীবী ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরনে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে ও রনাঙ্গনে চট্টগ্রাম কলেজের অংশগ্রহনকারী শিক্ষার্থী  মহান মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর সুধীর বিকাশ দেব,ডাঃ মোঃ আবু ইউসুফ চৌধুরী,এরশাদুল হক,কবি অরুন দাশ (সাথী দাশ) কে সম্মাননা প্রদান করা হয়। মধ্যাহ্ন ভোজ এর পর শুরু হয় চট্টগ্রাম কলেজের প্রাক্তন ছাত্র ছাত্রী দের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা ও স্মৃতি চারণ পর্ব । স্মৃতি চারণ করেন  বয়োজেষ্ঠ প্রাক্তন ছাত্র মাওলানা মহি উদ্দিন, ৬৪ সালের  ছাত্রী রাজিয়া সুলতানা, বাসনা হোড়, চট্টগ্রাম কলেজ প্রাক্তন ছাত্র ছাত্রী পরিষদেও  সাবেক সাধারণ সম্পাদক সেলিম জাহাঙ্গীর,মহিউদ্দিন শাহ আলম নিপু,মিসবাহ উদ্দিন আবসারুল ইসলাম, মাননীয় সংসদ সদস্য ও কলেজের প্রাক্তন ছাত্র সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি,প্রফেসর সালেহ জহুর, অধ্যক্ষ ফজলুল হক, সহ অনেক প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও শিক্ষক ।সাখাওয়াত হোসেন মজনুর সঞ্চালনায় বিশেষ আলোচনায় বক্তব্য রাখেন বিশ্ব বিখ্যাত চিকিৎসক ও চক্ষু রোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ রাশেদ নিজাম ও এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের রেজিষ্ট্রার ড.ডেভ ডোল্যান্ড ।এরপর প্রাক্তন শিক্ষার্থী মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও তার দলের পরিবেশনায়  লোক সঙ্গীত , ইকবাল হায়দার’র একক লোক সঙ্গীত পরিবেশনা, শিল্পী ফাহমিদা রহমান ও লীনা নাজনীন এর সঙ্গীত পরিবেশনা । সবশেষে  প্রাক্তন ও বর্তমানদেও উদ্দেশ্যে বলেন সদ্য অবসরে যাওয়া অধ্যক্ষ মোঃ আবুল হাসান ।তিনি বলেন আমরা যা পারিনি  তা চট্টগ্রাম কলেজ ফাউন্ডেশান করেছে । সংগঠক ও চট্টগ্রাম কলেজ ফাউন্ডেশােেনর সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন শারুদকে বিশেষ সুন্দর অনন্য  এই আয়োজনের জন্য বিশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন । লিজেন্ডারি ব্যান্ড তারকা আইয়ুব বাচ্চুর স্মরণে এলআরবি’র সতীর্থদের পরিবেশনায় অ ঞজওইটঞঊ ঞঙ গঅঊঝঞজঙ পরিচালনা করেন প্রয়াত শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু’র সতীর্থ ও আপনজনেরা । সর্বশেষে মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমান ও নাসির আহমেদের সঞ্চালনায় পরিচালিত হয় আকর্ষণীয় র‌্যাফেল ড্র ও পুরুস্কার বিতরণ । নিজাম উদ্দিন শারুদের সঞ্চালনায় বিশেষ সম্মাননা  ও ধন্যবাদ বক্তব্য রাখেন সাখাওয়াত হোসেন মজনু এবং সমাপনী বক্তব্য ও সমাপ্ত ঘোষনা করেন চট্টগ্রাম কলেজ ফাউন্ডেশনের সভাপতি সাবেক কাউন্সিলর শহিদুল আলম । সম্প্রীতি মেলায় এবারের সম্প্রীতি মেলার অন্যতম উদ্দেশ্য সম্প্রীতি ,বিনোদন, প্রাক্তন ও বর্তমান সতীর্থদের জন্য ১ কোটি টাকার একটি তহবিল গঠন করা ।

Please follow and like us:

About bdsomoy