ব্রেকিং নিউজ

শিক্ষার্থীদের নৈতিক শিক্ষায় সুশিক্ষিত হতে হবে :আবদুস সালাম

IMG_20190913_195638চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আবদুস সালাম বলেছেন, শিক্ষার কোন বিকল্প নাই। ব্যক্তিগত ও রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে উন্নতি করতে চাইলে শিক্ষার উপর সর্বোচ্চ জোর দিতে হবে। বিষয়টি উপলদ্ধি করেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচেছন। গ্রাম অঞ্চলেও যাতে মানসম্মত শিক্ষক ও শিক্ষার পরিবেশ থাকে সে জন্য সরকার নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। শিক্ষিত হয়েও যারা অপকর্ম করে, ঘুষ ও দুর্নীতির সাথে জড়িত হয় তারা প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত নয়। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন ‘সোনার বাংলা গড়তে হলে সোনার মানুষ চাই’। বঙ্গবন্ধুর কাঙ্খিত সোনার মানুষ হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হলে নৈতিক শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। তিনি পড়ালেখার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষা অর্জনের জন্য সকল শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি আজ ১৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকালে নগরীর ষোলশহরস্থ এলজিইডি মিলনায়তনে চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ আয়োজিত মেধাবী ও গরীব শিক্ষার্থীদেরকে শিক্ষাবৃত্তির চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার জহিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের সিনিয়র প্রকৌশলী মো: মনিরুল ইসলাম। উপসহকারী প্রকৌশলী অপু বড়–য়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন শিক্ষা বোর্ডের উপসচিব মোহাম্মদ বেলাল উদ্দিন, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ সদস্য শেখ আতাউর রহমান, আলহাজ্ব জাফর আহমেদ, শওকত আলম, আ.ম.ম দিলশাদ, আবু আহমেদ চৌধুরী, মোহাম্মদ ইউনুস, মুহাম্মদ জসিম উদ্দিন, আকতার উদ্দিন পারভেজ, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য দিলোয়ারা ইউসুফ, শাহিদা আকতার জাহান, রেহেনা আক্তার, এডভোকেট উম্মে হাবিবা, উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতাসহ জেলা পরিষদের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, বিপুল সংখ্যক গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ। উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ প্রতি অর্থবছরে রাজস্ব বাজেট হতে গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের অর্থ সহায়তা প্রদান করা থাকে। প্রতি বছরের ন্যয় এ বারও কলেজ, মাদ্রাসা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৮৬ জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকার চেক বিতরণ করা হয়।

Please follow and like us:

About bdsomoy