ব্রেকিং নিউজ

টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে তিন রোহিঙ্গা পাচারকারী নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় কথিত বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গাদের সাগরপথে মালয়েশিয়ায় পাচারকাজে জড়িত তিন ব্যক্তি নিহত হয়েছেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। মঙ্গলবার ভোররাত ৪টার দিকে উপজেলার মহেশখালিয়াপাড়া নৌঘাটে ওই ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে বলে পুলিশের দাবি। এতে পুলিশের দুই সদস্য আহত হন বলেও জানায় তারা। নিহত ব্যক্তিরা হলেন টেকনাফ উপজেলার নয়াপাড়াধীন গোলাপাড়া এলাকার আবদুল শুক্কুরের ছেলে কুরবান আলী (৩০), টেকনাফ পৌরসভার কে কে পাড়া এলাকার আলী হোসেনের ছেলে আবদুল কাদের (২৫) ও সুলতান আহমদের ছেলে আবদুর রহমান (৩০)।

টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানিয়েছেন, আজ ভোররাতের দিকে রোহিঙ্গা পাচার মামলার ১৫ আসামিকে ধরতে মহেশখালিয়াপাড়া নৌঘাটে যায় পুলিশের একটি দল। সে সময়  নৌঘাটে আগে থেকেই অবস্থানরত অস্ত্রধারী একদল মানবপাচারকারী পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে মানবপাচারকারীরা পিছু হটে পালিয়ে যায়।

পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তিনজনকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসক তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে তিনটি এলজি (আগ্নেয়াস্ত্র),  ১৫ রাউন্ড শটগানের কার্তুজ ও ২০টি কার্তুজের খোসা উদ্ধার করা হয় বলে জানান ওসি। এ ঘটনায় টেকনাফ থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা করা হয়েছে বলেও জানান তিনি ।

এ ছাড়া বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় টেকনাফ থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সায়েফ, কনস্টেবল মং ও মো. শুক্কুর আহত হন। তাঁদের টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Please follow and like us:

About bdsomoy