ব্রেকিং নিউজ

নারীদের সমতা ও ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করার জন্য আইন প্রনেতা ও নীতি নির্ধারকদের ভূমিকা পালন করতে হবে : চ্যান্সেলর চেরী ব্লেয়ার

DSC_9396আর্ন্তজাতিক বিশ্ববিদ্যালয় এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান (এ.ইউ.ডব্লিউ) চট্টগ্রামের ৭ম সমাবর্তন ১১ মে, ২০১৯ শনিবার বেলা ২ঘটিকায়  হোটেল রেডিসন ব্লু, চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হয়। সমাবর্তনে সভাপতিত্ব করেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর মাননীয় চ্যান্সেলর  মিসেস চেরী ব্লেয়ার।এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর  ছাত্রীদের সমবেত কন্ঠে গাওয়া বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের অনবদ্য গান “আগুনের পরশমনি ছোয়াও প্রাণে”গান বেজে উঠার মাধ্যমে ৭ম সমাবর্তন কার্যক্রম শুরু হয় । এবারের সমাবর্তনে  ফিলোসফী ,রাষ্ট্রবিজ্ঞান -অর্থনীতি, অর্থনীতি, এনভাইরেন্টাল সায়েন্স,পাবলিক হেলথ বিষয়ে  বাংলাদেশ সহ এশিয়া ও মিডলইস্ট এর দেশ সমূহের ১০০ জন শিক্ষার্থীকে গ্র্যাজুয়েট সম্মাননা  সার্টিফিকেট প্রদান করা হয় । উক্ত দেশ সমূহ হলো ঃ ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, মায়ানমার, নেপাল, ফিলিস্তিন, যুক্তরাষ্ট্র, কম্বোডিয়া, শ্রীলংকা, ভিয়েতনাম, ভূটান এবং বাংলাদেশ।
DSC_9274সভাপতির বক্তব্যে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান  এর মাননীয় চ্যান্সেলর মিসেস চেরী ব্লেয়ার  গ্র্যাজুয়েট সম্পাদনকারী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন ঃ “ প্রিয় শিক্ষার্থীরা তোমাদের যথেষ্ট যোগ্যতা ও দক্ষতা রয়েছে  এবং আজকে তোমরা তোমাদের সে সনদ লাভ করেছ ।সফলতার জন্য তোমাদেরকে সেবার মাধ্যমে তোমাদেরকে যোগ্য কর্মবীর হিসেবে তোমাদেরকে সফলতা অর্জন করতে হবে । পাশাপাশি এক একজন যার যার এলাকায় চেঞ্জমেকার হিসেবে নিজেদেও নেতৃত্বকে বিকশিত করবে ” । তিনি আরো বলেন “সমানঅধিকার এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান   এর মূল কার্যক্রমের ভিত্তি আর তোমরা এই বিশ্ববিদ্যালয়ে নারীদের সমানধিকার বিশেষতঃ শিক্ষার অধিকার নিশ্চিত করার জন্য নিজেদেরকে তৈরি করেছ আর তোমাদেরকে সেটা নিশ্চিত করার জন্য অনেক দূরে এগিয়ে যেতে হবে । তিনি আরো বলেন ঃ নারীদের সমতায়ন একটি কঠিন বিষয় ।এটা কোন  ব্যক্তিগত ভাবে অর্জিত বিষয় না এটা অর্জন করার জন্য আইন প্রনেতা ও নীতি নির্ধারকদের অন্যতম প্রধান দায়িত্ব হিসেবে ভূমিকা পালন করতে হবে ।পাশাপাশি সেটা নিশ্চিত করার জন্য যথাযথভাবে তাদের সুরক্ষা ও যতœ নিশ্চিত করতে হবে ।”
পাশাপাশি এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর পক্ষ থেকে সমাবর্তন অনুষ্ঠানে উপস্থিত আফগানিস্থানের প্রেসিডেন্টের অবকাঠামো,মানব সম্পদ উন্নয়ন ও প্রযুক্তি বিষয়ক মাননীয় প্রধান উপদেষ্টা ও অর্থমন্ত্রী প্রফেসর ড. মুহাম্মদ হুমায়ন কাইয়ুমীকে “ডক্টর অফ লজ” ডিগ্রী প্রদান করা হয় প্রফেসর ড. মুহাম্মদ হুমায়ন কাইয়ুমী বৈরত আমেরিকান ইউনিভার্সিটি হতে ইলেকট্রিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং এ ¯œাতক ডিগ্রী অর্জন করার  পাশাপাশি ইউনিভার্সিটি অফ সিনসিনাতি হতে আরো ৪ টি বিষয়ে ¯œাতক ডিগ্রী অর্জন করেন । নিওক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং,ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং এ ৩টি ¯œাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন । পরবর্তীতে ফিন্যান্স বিষয়ে এমবিএ ও ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এ পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন । প্রফেসর ড. মুহাম্মদ হুমায়ন কাইয়ুমীর ৮ টি বই এবং ১০০ এর অধিক  আর্টিক্যাল বিশ্বের বিভিন্ন র্জানালে মুদ্রিত হয় । আফগানিস্থানের প্রেসিডেন্টের অবকাঠামো,মানব সম্পদ উন্নয়ন ও প্রযুক্তি বিষয়ক মাননীয় প্রধান উপদেষ্ঠা ও অর্থমন্ত্রী  হওয়ার পূর্বে আমেরিকার ক্যালিফূর্নিয়ার সিলিকণ ভ্যালির প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত স্যান জোস স্টেট ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং  ডিপার্টমেন্টের ২৮তম সভাপতি ও প্রফেসর হিসেবে কর্মরত ছিলেন । এর পূর্বে তিনি  ক্যালিফূর্নিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটি ইস্ট বে’র সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ।
এবং ২০১৬ সালে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক খেতাব “স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার ” প্রাপ্ত বাংলাদেশের প্রখ্যাত রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যকলা ডিপার্টমেন্টের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর রেজওয়ানা চৌধুরী  বন্যাকে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর পক্ষ থেকে “ডক্টর অফ আর্টস” সম্মান সূচক ডিগ্রী প্রদান করা হয়। প্রফেসর রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা প্রফেসর রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা বাংলাদেশের প্রখ্যাত রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী । বর্তমানে বাংলাদেশের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যকলা ডিপার্টম্যান্টের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন । সংগীতে অনন্য অবদানের জন্য প্রফেসর রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা ২০১৬ সালে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার “স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার ” লাভ করেন  । ইতিপূর্বে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের  সংগীত ডিপার্টম্যান্টের সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন । তিনি ঢাকায় অবস্থিত সংগীত বিদ্যালয় “সুরের ধারার” প্রতিষ্ঠাতা ।তিনি ঢাকার ছায়ানট,বুলবুল একাডেমী ও চারুকলায় সানজিদা খাতুন ও আতিকুল ইসলামের তত্তাবধানে সংগীতে তালিম গ্রহন করেন । পরবর্তীতে তিনি ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশন (আইসিসিআর) এর মাধ্যমে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত “শান্তি নিকেতন” বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করার জন্য স্কলারশীপ লাভ করেন । তিনি শান্তি নিকেতনের বিখ্যাত সব শিক্ষক কণিকা বন্দ্যোপাধ্যায়,নিলীমা সেন,শৈলাজরঞ্জন মজুমদার, শান্তিদেব ঘোষ, গোরা সর্বাধিকারী, মনজু বন্দ্যোপাধ্যায়, এবং অশেষ বন্দ্যোপাধ্যায় এর সাহচর্যে রবীন্দ্র সংগীতের উপর শিক্ষা লাভ করেন ।
DSC_9258ড. মুহাম্মদ হুমায়ন কাইয়ুমীকে “ডক্টর অফ লজ” ডিগ্রী প্রদান করার প্রাক্ষালে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর ফাউন্ডার কামাল আহমেদ বলেন ঃ- আমরা আজকে ড. মুহাম্মদ হুমায়ন কাইয়ুমীকে শুধু মাত্র তার সরকারী,একাডেমিক বা  অসাধারণ অর্জন বা অবদানের জন্য সম্মাননা জানাচ্ছি না বরঞ্চ তিনি এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর জন্য এক অসাধারণ ও অনন্য অনুকরনীয় ব্যাক্তিত্ব ।যিনি বেড়ে উঠেন আফগানিস্থানের  কাবুলের এক অজ পাড়া গ্রামে । কার্পেন্টার বাবার সংসারে বেড়ে উঠা ছয় সন্তানের একজন । সপ্তাহে তিন দিন শুধু ইংরেজী শেখার জন্য হেঠে যেতেন কয়েকমাইল দুরে । বৈরত আমেরিকান ইউনিভার্সিটির একটি শিক্ষা বৃত্তি তার জীবনের মোড়কে ঘুরিয়ে দিয়েছে যার ফলশ্রুতিতে তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র হতে গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রি লাভ করেন । বর্তমানে তিনি আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্টা এবং সামাজিক উন্নয়নে জনগনের সম্পৃক্ততা নিয়ে কাজ করছেন । এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান সাথে তিনি আন্তরিক ভাবে প্রতিশ্রুতবদ্ধ হয়েছেন, আফগানিস্তানের ৩৪ টি অংগ রাজ্যের নারীদের শিক্ষার সাথে  যৌথ ভাবে কাজ করার জন্য  ।
“স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার ” প্রাপ্ত বাংলাদেশের প্রখ্যাত রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যকলা ডিপার্টমেন্টের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর রেজওয়ানা চৌধুরী  বন্যাকে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর পক্ষ থেকে “ “ডক্টর অফ আর্টস” সম্মান সূচক ডিগ্রী প্রদান করার প্রাক্ষালে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর ফাউন্ডার কামাল আহমেদ বলেন ঃ-বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথের ভাষায় “চিত্ত যেথা ভয়শূন্য, উচ্চ যেথা শির, জ্ঞান যেথা মুক্ত, যেথা গৃহের প্রাচীর আপন প্রাঙ্গণতলে দিবস শর্বরী” আর এই সব বিষয়ই আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ । রেজওয়ানা চৌধুরী  বন্যা তার গানের মাধ্যমে রবীন্দ্রনাথের ঠাকুরের জ্ঞান ও দর্শনের  অনন্য বিকাশ করছেন ।  কবি গুরুর গানে যে মানবতার বন্ধনা এবং প্রজ্ঞার ব্যাপ্তি নিয়ে তিনি মানুষকে উৎসাহিত করছেন তাহা অনন্য । যাহা মানুষকে হিংসা বিদ্বেশ ভূলে সামনে এগিয়ে যাওয়ার পথকে অনুপ্রানিত করে ।
এবারের সমাবর্তনে অসাধারণ একাডেমিক সাফল্য লাভ  করার জন্য  ৩ জন শির্ক্ষাথী এন্ডি মাটসুই এ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করা হয় । তারা হলেন  পলিটিক্স ,ফিলোসফী ও ইকোনোমিকস এর আবরেশমী নওয়ার ,ইকোনোমিকস এর ফিরোজা স্বপ্নীল ও ইকোনোমিকস এর মেহরিন মোস্তফা । উল্লেখ্য তারা তিনজনই বাংলাদেশী ।

এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. র্র্নিমলা রাও বলেন “ এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান হতে যারা ইতিপূর্বে গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রী লাভ করেছে তারা তাদের স্ব স্ব ক্ষেত্রে বিশেষতঃ অর্থনীতি,সাংস্কৃতিক ও সামাজিক কর্মকান্ডে বিশেষ ভাবে অবদান রাখছে।  তারা জাতীয় ,আর্ন্তজাতিক বহুমূখী প্রাইভেট সেক্টরে প্রফেশনাল হিসেবে তাদের কর্মকান্ড পরিচালনা করছে । বিশেষত তারা নন প্রফিট তথা জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থা বিশেষত ইইএনএইচসিআর,বিশ্ব খাদ্য কার্যক্রম সংস্থা ,বিশ্ব ব্যাংক সহ বিশ্বের বিভিন্ন বেসরকারী সেচ্ছাসেবী সংস্থায় কাজ করে আসছে । তিনি আরো বলেন বর্তমানে প্রায় এই পর্যন্ত ৮০০ শিক্ষার্থী এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান  হতে তাদেও শিক্ষা সমাপ্ত করেছে  এবং তারা তাদেও পছন্দশীল যায়গাতে তাদেও নিজেদের ক্যারিয়ার গঠন করছে । পাশাপাশি তারা তাদের নিজেদেও জায়গায় যার যার সমাজ বির্নিমানে কাজ করছে । তিনি আরো বলেন “ প্রফেসর ড. মুহাম্মদ হুমায়ন কাইয়ুমী এবং প্রফেসর রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যাকে সম্মান জানাতে পেরে  এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান (এ.ইউ.ডব্লিউ) খুবই গর্ববোধ করছে । তিনি বিশ্বাস করেন ৭ম সমাবর্তনে যে সমস্ত তরণীরা গ্রাজুয়েট  সার্টিফিকেট অর্জন করবে তারা তাদের মাঝে অনন্য “রোল মডেল” ব্যক্তিদের সাহচর্য্য পেয়েছে তাতে তারা ও  তাদের মত অভিষ্ঠ লক্ষ্য অর্জনে সাহসী হয়ে উঠবে ।”

সমাবর্তনে আরো বক্তব্য রাখেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান (এ.ইউ ডব্লিউ) বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর সদস্য বিজিএমইএ এর নববির্বাচিত সভাপতি রুবানা হক , ডিরেক্টর এডমিশন রেহেনা খান , এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান (এ.ইউ ডব্লিউ) স্টুডেন্ট গর্ভনমেন্ট এর প্রেসিডেন্ট মুনতাহা চৌধুরী । ৭ম সমাবর্তনের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান (এ.ইউ ডব্লিউ) ইউনিভার্সিটি রেজিষ্ট্রার ড.ডেভ ডোল্যান্ড।

Please follow and like us:

About bdsomoy