রবিবার, মে ১৯, ২০২৪
প্রচ্ছদচট্রগ্রাম প্রতিদিনহাতাহাতির পর তড়িঘড়ি সমাবেশ শেষ

হাতাহাতির পর তড়িঘড়ি সমাবেশ শেষ


হাতাহাতির পর তড়িঘড়ি সমাবেশ শেষ

চট্টগ্রাম অফিস (বিডি সময় ২৪ ডটকম)

নগরীতে একটি দলীয় সমাবেশে চেয়ারে বসা নিয়ে নেতাকর্মীদের দু’গ্রুপে হাতাহাতির পর অপ্রীতিকর পরিস্থিতির আশংকায় তড়িঘড়ি করে কর্মসূচী শেষ করেছে বিএনপি। সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী আবদুল্লাহ আল নোমান। সমাবেশের আয়োজনও করেছিলেন নোমানের অনুসারীরা।

তবে সমাবেশে নির্বিঘ্নে বক্তব্য দিতে পেরেছেন বিএনপি নেতা আবদুল্লাহ আল নোমান। তার বক্তব্যের পরই দ্রুত কর্মসূচী সমাপ্ত ঘোষণ‍া করা হয়।

শনিবার বিকেলে নগরীর ডবলমুরিং থানার ডায়মন্ড টাচ কমিউনিটি সেণ্টারে তত্তাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুর্নবহাল ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার বন্ধের দাবিতে এ সমাবেশের আয়োজন করে নগরীর ১২ নম্বর সরাইপাড়া ওয়ার্ড বিএনপি।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা ডবলমুরিং থানার ওসি মতিউল ইসলাম বলেন, ‘বিএনপির সমাবেশে দু’গ্রুপে হাতাহাতির খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। গিয়ে আবদুল্লাহ আল নোমান সাহেবকে দ্রুত সমাবেশ শেষ করে চলে যেতে দেখেছি। পরে কর্মীরাও চলে যান।’

তবে সমাবেশের সঞ্চালক সরাইপাড়া ওয়ার্ড বিএনপির সঞ্চালক দিদারুর রহমান বলেন, ‘বৃষ্টির জন্য আমরা কমিউনিটি সেণ্টারে সমাবেশের আয়োজন করেছি। কিন্তু মানুষ বেশি হয়ে যাওয়ায় স্থান সংকুলান হচ্ছিলনা। এজন্য কমিউনিটি সেণ্টারের বাইরে একটু সমস্যা হয়েছে। তবে নোমান ভাই বক্তব্য রাখতে পেরেছেন। ভেতরে সমাবেশ করতে আমাদের কোন সমস্যা হয়নি।’

এদিকে মন্ত্রী আবদুল্লাহ আল নোমানের একান্ত সচিব নূরুল আজিম হিরুর পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সরাইপাড়া ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি কামাল উদ্দীনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক দিদারুর রহমান সুমনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে নগর বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি ও পাহাড়তলী থানা বিএনপির আহবায়ক সাবেক কাউন্সিলর শামসুল আলম, মহানগর জাসাসের সভাপতি কাজী আকবর, বিএনপি নেতা কাউন্সিলর হাজী বাবুল হক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সমাবেশে আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, ‘গাজীপুরে নির্বাচনের ফল ছিনিয়ে নেওয়া হলে সরকার পতনের আন্দোলন সারাদেশে ছড়িয়ে পড়বে। এই আন্দোলনের চূড়ান্ত পরিণতি হবে সরকারের জন্য ভয়াবহ।’

তিনি বলেন, ‘সরকার তারেক রহমানের জনপ্রিয়তাকে ভয় পাই। কারণ তারেক রহমান তার দক্ষতা ও যোগ্যতার মাধ্যমে মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘তারেক রহমানের নেতৃত্বেই শহীদ জিয়ার ১৯ দফা কর্মসূচী বাস্তবায়ন করে বাংলাদেশকে দূর্নীতিমুক্ত, সুখী ও সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে প্রতিষ্টা করা হবে।’

নোমান রমজানের আগেই দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি রোধ, বিদ্যুৎ, পানি ও গ্যাসের সংকট সুরাহা করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। অন্যথায় বিএনপি হরতালের মত কঠোর কর্মসূচী ঘোষণা করতে বাধ্য হবে বলে তিনি জানান।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ