সোমবার, এপ্রিল ২২, ২০২৪
প্রচ্ছদজাতীয়“তোমার বাবার পরিচয় কী? তোমার মার কাছে গিয়ে জিজ্ঞাস করো

“তোমার বাবার পরিচয় কী? তোমার মার কাছে গিয়ে জিজ্ঞাস করো

স্টাফ রিপোর্টার : বিরোধি দলীয় সাংসদ আন্দালিব রহমান পার্থ ‘বাবার নামে চলে’ মন্তব্য করে সরকার দলীয় সাংসদ শামসুল হক বলেছেন, “তোমার বাবার পরিচয় কী? তোমার মার কাছে গিয়ে জিজ্ঞাস করো, তোমার বাবার আয় ইনকাম কী ছিলো?

সোমবার মন্ত্রীসহ সরকারি দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের সমালোচনার পর সংসদে সরকারি দলের তোপের মুখে পড়েন বিএনপির জোট শরিক বিজেপির চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থ।

অধিবেশনে বাজেট নিয়ে আলোচনায় মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, আওয়ামী লীগ নেতা তোফায়েল আহমেদ, সাবেক মন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন, প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানকের সমালোচনা করেন তিনি।

এরপর আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য শামসুল হক চৌধুরী বিজেপি চেয়ারম্যানের বাবা নাজিউর রহমান মঞ্জুরের ‘দুর্নীতির’ প্রসঙ্গ তুলে আনেন।

এইচ এম এরশাদের সরকারে মন্ত্রী ছিলেন নাজিউর, ছিলেন ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র। জাতীয় পার্টির মহাসচিবও ছিলেন তিনি।

পরে মঞ্জুর জাতীয় পার্টি থেকে বেরিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি) নামে একটি দল গঠন করেন। তার মৃত্যুর পর ওই দলের চেয়ারম্যান হন পার্থ।

পার্থকে সরকারি দলের এই সাংসদ প্রশ্ন করেন “লাখ টাকার স্যুট পরো! কার টাকায় তুমি ব্যারিস্টারি পড়েছো? এখানে এসে সুরঞ্জিত বাবু আর নানক সাহেবকে নিয়ে কথা বলো! এরশাদ সাহেব এখানে থাকলে ভালো হতো। উনার হাসি পেতো।”

মতিঝিল থেকে হেফাজতে ইসলামকর্মীদের হটিয়ে দেয়া নিয়ে সুরঞ্জিতের বক্তব্যকে ধরে পার্থ সংসদে বলেন, “এখন যদি এক লাখ লোক তার বিরুদ্ধে মিছিল করে, তাহলে কার দোষ হবে। ওই মন্ত্রীর, না কি মিছিলকারীদের?”

প্রতিমন্ত্রী নানক নিজের মেয়ের নামে ভিওআইপি ব্যবসা করছে বলে অভিযোগ করে বিজেপি চেয়ারম্যান বলেন, “তিনি রানা প্লাজার জন্য তিন দিন সাভারে বসে না থেকে যদি তিন দিনের আয় দিয়ে দিতেন, তাহলে সমস্যার সমাধান হতো।”

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিষয়ে তিনি বলেন, “তত্ত্বাবধায়কের কথা বললে বলা হয়, এটা দিলে আর্মি চলে আসবে। সেনাবাহিনীর প্রতি আমার কোনো উইকনেস নাই। কারণ সেনাবাহিনীর জন্য আমার পিতা মারা যাওয়ার আগে চিকিৎসা করাতে পারি নাই। আমরা চাই, গণতান্ত্রিক পন্থায় ক্ষমতার বদল হোক।”

হেফাজতে ইসলাম সম্পর্কে বিরোধী দলের এই নেতা বলেন, “হেফাজতে ইসলামের নেতা আল্লামা শফী সাহেব ৯০ বছর বয়স। হেলিকপ্টারে করে যাতায়াত করেছেন। পরদিন পত্রিকায় চলে এলো, তারা কোথায় টাকা পেলো? আমাদের তোফায়েল আহমেদ সাহেব গত চার বছরে ৪০ বার হেলিকপ্টারে করে ভোলায় গেছেন, এটা নিয়ে তো কোনো প্রশ্ন আসেনি।”

গণজাগরণ মঞ্চের কর্মী ব্লগার আহমেদ রাজীব হায়দারের হত্যাকাণ্ড নিয়ে পার্থ বলেন, “থাবা বাবা ব্লগটি যদি রাজীবের না হয়ে থাকে, তাহলে ওটা কেন সত্য হবে যে চারজন রাজীবকে হত্যা করেছে তারা ওই ব্লগ পড়েছে। তার মানে থাবা বাবা ছিলো।”

বিদ্যুৎ খাতে ‘দুর্নীতির’ অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, “আগে বলেছিলাম সামিট গ্রুপের কথা। বিদ্যুৎ খাতের শাহেনশাহ আজিজ খান। শাহেনশাহ বাদ দিলাম, এখন আসছে বিদ্যুৎ খাতের বাদশাহ।

“এই বাদশাহ কেউ না, আগে শুনেছেন পদ্মা সেতুতে আবুল হোসেন সাহেবের নাম। আবুল হোসেন ইজ দ্য বিগেস্ট প্লেয়ার ইন পাওয়ার সেক্টর।”

পদ্মা সেতু নিয়ে তিনি বলেন, “পদ্মা সেতু যদি কখনো হয়, তাহলে আবুল হোসেনের নামে করা উচিত। দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।”

প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনায় দাঁড়িয়ে বিএনপির মাহমুদুল হাসান প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও তারেক রহমানকে নিয়ে আপত্তিকর কথা কার্যবিবরণী থেকে বাদ দেয়ার দাবি জানান।

সাবেক সেনা কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসানের রাজনৈতিক জীবন তুলে ধরে সরকারি দলের শামসুল হক বলেন, “থিফ অফ বাগদাদ কে, তা সকলে জানে। আপনাদের নেত্রীই (খালেদা জিয়া) ওনাকে এই নামে ডাকতেন।”

এইচ এম এরশাদের সরকারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন টাঙ্গাইলের মাহমুদুল হাসান। তিনি কিছুকাল আগে বিএনপিতে যোগ দেন।  

আরও পড়ুন

সর্বশেষ